বঙ্গবন্ধু বিপিএল-এ সর্বোচ্চ উইকেট কচুয়া উপজেলার মেহেদীর দখলেই

                                                                                              বঙ্গবন্ধু বিপিএল-এ চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের হয়ে নিয়মিত মুল একাদশে খেলছেন চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার মেহেদী হাসান রানা। এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত বিপিএল এর ৩৩ ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে। মেহেদী হাসান রানা চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের হয়ে খেলেছেন ৮টি ম্যাচ । আর এ ৮টি ম্যাচ খেলেই এবারের বিপিএল-এ এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ উইকেটের শিকার তার দখলেই।

শনিবার (৪ জানুয়ারী) দুপুরে খুলনার সাথে ৩ উইকেট পেয়ে ১৭টি উইকেট শিকার করেন। তার বোলিং তোপের মুখে প্রতিপক্ষের ব্যাটসম্যানরা দাড়াঁতেই পারেন না।

তাকে নিয়ে বাংলাদেশের ক্রীড়াপ্রেমিরা ভালো একজন বোলার হিসেবে স্বপ্ন দেখছেন নতুন করে। ২২ বছর বয়সী এ ক্রিকেটার বিপিএলের সকল দলের খেলোয়াড়, কর্মকতা, ক্রীড়ামোদী দর্শক, খেলার ধারা ভাষ্যকারসহ সকলেরই মন জয় করে নিয়েছেন।

তার ক্রিকেটের হাতেখড়ি হয় চাঁদপুর ক্লেমন ক্রিকেট একাডেমীর মাধ্যমে। চাঁদপুরের ক্রিকেটের কর্নধার ও ক্রীড়া সংগঠক এবং ক্লেমন ক্রিকেট একাডেমীর প্রতিষ্ঠাতা ক্রিকেট কোচ শামিম ফারকীর মাধ্যমে সে ক্রিকেটের যাত্রা শুরু করেন।

চাঁদপুর জেলার কচুয়া উপজেলার বীর মুক্তিযোদ্ধা মঞ্জুরুল হকের ছেলে রানা। তার বাবা সেনাবাহনীর অবসরপ্রাপ্ত কর্মকতা। ২ভাই ২ বোনের মধ্যে সে সবার ছোট। বর্তমানে তারা ঢাকার উওরায় বসবাস করেন।

চাঁদপুর স্টেডিয়ামে সে একসময় তার উপজেলা কচুয়ার হয়ে ফুটবলও খেলেছেন। আর স্কুল-ক্রিকেট সবচেয়ে বেশী ম্যাচ খেলেছেন। শনিবারের ম্যাচেও সে ম্যান অব দ্যা ম্যাচ হয়েছেন।

মেহেদী এ পর্যন্ত চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের হয়ে ৮টি ম্যাচ খেলেছেন। ৮টি ম্যাচে বোল করেছেন ২৭ ওভার । আর বোলিংয়ে সে ৪টি মেডেল সহ ১৮০ রানের বিনিময়ে রানা দখল করে নিয়েছেন ১৭ টি উইকেট।

বিপিএলে মেহেদীর পর দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের কার্টার মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমান। অবশ্য মেহেদী হাসান রানার একজন ভালো বন্ধু মোস্তাাফিজুর রহমান। আর ১২টি উইকেট পেয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছেন বোলার শহিদুল।

উল্লেখ ,২০১৭ সালের ৫ ডিসেম্বর ২০১৭ বাংলাদেশ প্রিমিয়ারলীগ প্রতিযোগিতায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস এর হয়ে টুয়েন্টি ২০ ক্রিকেটে তার অভিষেক ঘটে। ২০১৮ সালের অক্টোবরে, ২০১৮ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ প্রতিযোগিতার জন্য খেলোয়াড়দের খসড়া তৈরীর পর তাকে সিলেট সিক্সার্স এর স্কোয়াড হিসাবে ঘোষণা করা হয়।

নভেম্বর ২০১৯ সালে, তাকে ২০১৯ এসিসি ইমার্জিং দল এশিয়া কাপ এর জন্য বাংলাদেশ স্কোয়াডে মনোনীত করা হয়। একই মাসে পরবর্তীতে তাকে ২০১৯ সাউথ এশিয়ান গেমস এর ক্রিকেট টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ স্কোয়াডে মনোনীত করা হয়। বাংলাদেশ দল উক্ত খেলার ফাইনালে শ্রীলঙ্কাকে ৭ উইকেটে পরাজিত করা স্বর্ণপদক জয় লাভ করে।

২০১৯ সালের ১৭ ডিসেম্বর ২০১৯-২০ বাংলাদেশ প্রিমিয়ারলীগ এ সিলেট থান্ডার এর বিপরীতে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স-এর হয়ে খেলে ৪ ওভারে ২৩ রানের বিনিময়ে ৪টি উইকেট লাভ করে ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হন।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

শিক্ষাঙ্গন

খেলাধুলা

লাইফস্টাইল

ঘোষনাঃ