কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে ২০০ বছরের পুরোনো ২০ কেজি ওজনের একটি নন্দী মূর্তি (গো-মূর্তি) উদ্ধার

কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে একটি মন্দিরের ধ্বংসাবশেষ থেকে ২০ কেজি ওজনের একটি নন্দী মূর্তি (গো-মূর্তি) উদ্ধার করেছে স্থানীয়রা। ২০০ বছরের পুরোনো ১৩ ইঞ্চি লম্বা ও সাড়ে পাঁচ ইঞ্চি চওড়া মূর্তিটি কষ্টি পাথরের হলে এর এন্টিক মূল্য কয়েক কোটি টাকা হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

শুক্রবার মাটি খননের সময় প্রাচীন আমলের ওই মূর্তিটি পাওয়া যায়। খবর পেয়ে শনিবার মূর্তিটি উদ্ধার করে পুলিশ।

রোববার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে জেলা পুলিশ অফিসের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার সৈয়দা জান্নাত আরা এসব তথ্য জানান। এসময় সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন, এডিশনাল এসপি রুহুল আমিন, এএসপি উৎপল কুমার রায়, এএসপি কল্লোল দত্ত, প্রেসক্লাবের সভাপতি অ্যাডভোকেট আহসান হাবীব নীলু প্রমূখ।

এ সময় তিনি বলেন, মূর্তিটি প্রাথমিকভাবে যাচাই-বাছাই করে দেখা গেছে এটি কষ্টিপাথরের হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। যথাযথ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে এটি প্রত্নতাত্বিক বিভাগের হাতে হস্তান্তর করা হবে।

তিনি আরো জানান, নাগেশ্বরী উপজেলার মধ্যসুখাতি বামনটারী এলাকায় পুরনো মন্দিরের ধ্বংসাবশেষের মাটি সরানোর সময় মূর্তিটি উদ্ধার করেন স্থানীয় কৃষক শ্রীধর চন্দ্র বর্মন। এরপর এটি তিনি নিজের বাড়িতে রেখে দেন। পরে শনিবার (১০ জুলাই) নাগেশ্বরী থানা পুলিশ তার বাড়ি থেকে মূর্তিটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। মূর্তিটি প্রায় ২০০ বছরের বেশি পুরোনো হতে পারে।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

শিক্ষাঙ্গন

খেলাধুলা

লাইফস্টাইল

ঘোষনাঃ